এদেশে আরিয়ান-জাকিয়াদের যে কারনে জন্মাতে হয় না

বেশ কয়েক মাস আগে আমাদের অফিসে আরিফ নামের একটা তরুন ছেলে আসলেন এক পূর্ববর্তী পরিচয়ের সূত্রে। জানালেন, তারা পথশিশুদের নিয়ে কয়েক বছর যাবত কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের হাতেখড়ির জন্য একটা স্কুল বানানো হয়েছে, স্কুলের নাম ”মজার স্কুল” (লিংক কমেন্টে)। তো, র‌্যান্ডম যে যা পারেন টাকা পয়সা দেন – এই রকম না, বরং সে এসেছিলো একটা স্পেসিফিক অনুদান চাইতে। Continue reading

খবরের গুরুত্ব অনুধাবনে আমাদের জাতিগত বালখিল্যপনা

: খরব শুনছস?
: কি হইছে?
: অষ্ট্রেলিয়া আসতে পারতেছে না দেশে, জংগী হামলার আশংকা।
: ওহ তাই নাকি? আরে এইসব বোগাস! চিন্তা নিস না।
 
এইটা বইলা হাই তুইলা Clash of Clans খেলতে বসলাম।
 
কিছুক্ষন পর …

Continue reading

উন্নত বিশ্বের আতশী কাচেঁর নীচে আমাদের অর্থমন্ত্রীর ভ্যাট-প্রহসন

Hecs_australia_Bangladesh_Vat_on_Education
উন্নত দেশগুলোতে পড়াশোনার খরচ এমনিতেই অনেক বেশী। সুতরাং, তারা তাদের নিজেদের ছেলে পেলেদের জন্য কি রকম সুযোগ সুবিধা রেখেছে, সেটা এই মূহুর্তে আমাদের জানা দরকার বলে মনে করি। তাতে আমাদের অর্থমন্ত্রীর প্রহসনটা ম্যাগনিফাইনিং গ্লাসের নীচে ধরা পড়বে। অন্য দেশের কথা জানি না, তবে অষ্ট্রেলিয়া তার নাগরিকদের সেমিষ্টার ফি দেবার জন্য অবিশ্বাস্যরকমের এফর্টবেল দুটো প্রোগ্রাম চালু রেখেছে।
Continue reading

ব্যক্তিগত ব্লগিং ও পেশাগত ব্লগিং নিয়ে কিছু কথা

blogger-2

(১)

নিজের একটা ছোটখাটো ব্যক্তিগত ব্লগ থাকার সুবাদে প্রায়ই আমাকে ইনবক্সে প্রশ্ন করা হয় যে, কিভাবে নিজের একটা ব্লগ সাইট খোলা যাবে। ওয়েল, আমি এর উত্তরে প্রথমেই বলি, আপনার যদি আগে কখনো ব্লগিং করার অভিজ্ঞতা না থাকে, তবে আপনার শুরুটা হওয়া উচিত কমিউনিটি ব্লগিং দিয়ে। কারন সেখানে আপনার হাত পাকবে, লেখা ম্যাচিউর হবে। আর সবচাইতে বড় যে উপকারটা হবে সেটা হলো, আপনি আপনার লেখার সমালোচনা সহ্য করার শক্তি অর্জন করতে পারবেন; যেটা অনেক বড় বড় কবি লেখকেরো নাই।

আপনার লেখার গঠনমূলক সমালোচনা আপনাকে অনেক বেশী শানিত করবে, নিজের দৌঁড় কতটুকু এবং আরো কতটা পথ আপনাকে যেতে হবে, সে ব্যাপারে সম্যক ধারনা পাবেন। এইসব কমুনিটি ব্লগেই সম্ভব। ব্লগিং লাইফের শুরুটা ব্যাক্তিগত ব্লগ দিয়ে শুরু করলে এই মূল্যবান সুযোগগুলো হারাবেন। আর অন্যদের লেখা, অন্যদের ব্লগ প্রচুর পড়বেন। শুরু অনন্ত একটা বছর নিজে খুব কম লিখবেন। পড়বেন বেশী। যতবেশী পড়বেন, আপনার ব্লগিংয়ের জন্য ততই মঙ্গল। Continue reading

পপকর্ণ টাইমঃ নিকট ভবিষৎতে আমাদের মুভি দেখার পদ্ধতি হয়তো এমনটাই হবে!

Le logo de PopCorn Time

সিনেমা হলে মুভি দেখতে বসলে প্রথমেই কোন জিনিসটার কথা আমাদের সবার আগে মনে পড়ে? হুম ঠিক ধরেছেন, পপকর্ণ! তো সফটওয়্যার ডেভেলপাররা এবার  অনলাইন দুনিয়ায় এই নামে নিয়ে এসেছে এমন একটি ওপেনসোর্স প্রজেক্ট, যার মাধ্যমে আপনি নিজের ঘরটাকেই আস্ত একটা সিনেমা হলে বানিয়ে ফেলতে পারবেন! শুধু তাই নয়,  দেখতে পারবেন নতুন নতুন  টিভি সিরিজও! তবে আপাততঃ মুভি দেখতে নয়, পপকর্ণ নিয়ে বসে পড়ুন এই পোষ্টটি পড়তে। Continue reading

আমেরিকাতে সমকামী বিয়ের বৈধতা প্রসঙ্গে কিছু কথা


PrideDesignঅষ্ট্রেলিয়াতে প্রতি বছরের শুরুর দিকে মারদিগ্রা (Mardi Gras) নামের একটা প্যারেড হয়। লেন্ট মৌসমের রোজা রাখার আগে সবাই মিলে পেট পুরে ভালো মন্দ খায়, ইচ্ছেমতো রিচ ফুড খায়, সেটাকেই তারা উদযাপন করে মারদিগ্রার মাধ্যমে। এটা আদ্যোপান্ত খ্রিষ্টিয় ধর্মীয় উৎসব কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, এই দিনে অষ্ট্রেলিয়ার সমস্ত সমকামী দম্পতি রাস্তায় নেমে আসে। কি তাদের বাহারি সাজ, কি তাদের পোষাক আষাক!! চারিদিকে আনন্দের হুল্লোড় বয়ে যায়। তারা জানে আপনি তাদের মতো নন, কিন্তু ঐদিন রাস্তায় আপনার সাথে দেখা হলো তারা আপনাকে চকোলেট দিবে, বিয়ার সাধবে, হাসিমুখে হ্যান্ডশেইক করে একসাথে ছবিও তুলবে।
Continue reading

দেশের তরুণ প্রজন্ম ও ইনসমনিয়াঃ এক অভিশপ্ত মেলবন্ধন

awakeএখনকার বেশীরভাগ সদ্য তরুনী বা তরুনী মেয়েদের মধ্যে একটা কমন জিনিস দেখতে পাচ্ছি, সেটা হচ্ছে এরা প্রায় সবাই ইনসোমনিয়ায় ভুগছে। [প্রশ্ন আসতে পারে, ছেলেরাও তো ভুগছে, সেটা খেয়াল করিনি? প্রশ্ন হচ্ছে, করেছি। কিন্তু ছেলেদের এই সমস্যা ইদানিংকার না, অনেক আগেরই। একটা সময় শুধু ছেলেরাই ইনসোমনিয়ায় ভুগতো, এখন সমানতালে মেয়েরাও ভুগছে]। আমার বন্ধু তালিকায় এমন কিছু মেয়ে রয়েছেন, তাদের সাথে আলাপচারিতায় জানতে পেরেছি তাদের রাতে না ঘুমানোর অভ্যেস রয়েছে, কেউ কেউ ভোর রাতে বা ভোরের দিকে ঘুমুতে যান এমনকি কেউ কেউ ঘুমের জন্য নিয়মিত ঘুমের ট্যাবলেটও খান। অথচ কেন তাদের রাতে ঘুম আসে না, এ ব্যাপারে প্রশ্ন করে কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি। বেশীরভাগই কোন কারন বলতে পারেননি।
সম্প্রতী এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ৫ বছর আগের তুলনায় এখনকার মেয়েরা নাকি প্রায় ২ ঘন্টা পর রাতে ঘুমুতে যায়। শতকরা ৪০ ভাগ নারী রাত ১/২টা পর্যন্ত জেগে থাকে সকালে অফিস বা ক্লাস থাকা সত্তেও! মনোবিজ্ঞানীরা এ বিষয়ে পত্রিকায় দিক নিদের্শনা দিতে পারেন। কারন ব্যাপারটা অবশ্যই সিরিয়াস এবং আশঙ্কাজনক। এবং ভবিষৎতে এই সমস্যা আরো গুরুতর আকার ধারন করতে পারে, ক্যারিয়ার এবং দাম্পত্যজীবনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। Continue reading

আমি যেভাবে আজ চাক্ষুষ করলাম বিধ্বস্ত রানা প্লাজা

সাভারের জন্য এলাকার কিছু ছেলে পেলে হাজার কয়েক টাকা তুলেছে এলাকা থেকে। তারা বাসে করে আজ বিকেলে যাবে। তাদের সঙ্গে আমিও গেলাম। এদিকে জগন্নাথ কলেজ থেকে ছাত্র ইউনিয়ন ও ছাত্র ফেডারেশনের একটা বড় সড় দল পিকাপ ভাড়া করে প্রায় একই সময়ে সাভারে রওনা দিলো। তাদের সাথে আছে অক্সিজেনআর ওষুধসহ প্রচুর দরকারী রসদ। তারা আমাকে তাদের সাথেই যেতে অনুরোধ করেছিলো, কিন্তু আমি আমার এলাকার ছোট ভাইদের সাথেই যেতে বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করলাম। Continue reading

Aside

বাংলাদেশের ব্যাংকিংখাত ও ভুক্তিভোগী হিসেবে আমার অভিজ্ঞতা

bangladesh

আমি অর্থনীতি ভালো বুঝি না। তবে ঢাবিতে ম্যানেজমেন্ট পড়াকালীন একবার ক্লাসে স্যারের এক প্রশ্নের জবাবে ফাজলেমি করে উত্তর দিয়ে স্যারের মৃদু প্রশংসাবাক্য শুনেছিলাম। প্রশ্ন ছিলোঃ সরকারের টাকা দরকার হলে সরকার কোথা থেকে সেই টাকার ব্যবস্থা করবে? আমার উত্তর ছিলোঃ স্যার, সরকারের তো টাকশালই আছে। সরকার শুধু টাকা ছাপাবে আর ইচ্ছেমতো খরচ করবে।

ভাবলাম ঝাড়ি খাবো, কিন্তু স্যার বল্লেন, ইয়েস! গুড এনসার। খালি এইটা না, সরকার চাইলে লোনও করতে পারে। খালি টাকা ছাপানোটা তো কোন কাজের কথা না। দরকারের সময় টাকা ছাপালো, ভালো কথা, কিন্তু দরকার শেষ হলে কি করবে? বাজারে যে বাড়তি টাকাগুলা অলরেডি চলে গেছে, ঐগুলার কি হবে? ঐটাকে বলে ইনফ্লেশান। মুদ্রাস্ফিতি। বাজার থেকে বাড়তি টাকা তুলতে না পারলে টাকার দাম কমে যাবে। এক কাপ চা খেতে হবে ব্যাগভর্তি টাকা দিয়ে। ঠিক এই জিনিসটাই আমার দেখলাম নাইজেরিয়াতে। সেখানে লোকে বস্তাভর্তি করে টাকা নিয়ে চলা ফেরা করে। অথচ এক পোয়া সয়াবিন তেল কিনতেই টাকার বস্তা শেষ! কারন সেখানে আসলে জিনিসপত্রের দাম বাড়ে নাই, বরং টাকার দাম কমেছে। Continue reading

“ফিফটি শেডস অব গ্রে”- সংক্ষিপ্ত রিভিউ ও অন্যান্য টুকিটাকি

top_banner

বিনোদন দুনিয়া এখন রীতিমতো ’ফিফটি শেডস অব গ্রে’ জ্বরে ভুগছে। এবারের ভ্যালেনটাইনস ডে তে মুক্তি পাবার পর থেকে আন্তজার্তিক মুভি ফোরাম, ওয়েব সাইট আর বিনোদন পত্র-পত্রিকাগুলোতে এই মুভিটা নিয়ে এত বেশী সংবাদ, রিভিউ, আলোচনা-সমালোচনা আর মকারি হচ্ছে যে, সবগুলো পড়া দূরে থাক চোখ বুলিয়েও শেষ করা সম্ভব না।

fifty-shades-darker-movie

এই মুভিটা নিয়ে আমি নিজেও অত্যধিক ’উত্তেজিত’। দুষ্টুমতি পাঠকদের জন্য বলছি, এই কাদের মোল্লা যেমন সেই কাদের মোল্লা নয় তেমনি এই উত্তেজনা সেই উত্তেজনা নয়। এই উত্তেজনা হচ্ছে, উপন্যাসের ট্রিলজিটা পড়ে শেষ করার পর সেইটা নিয়ে এই BDSM ঘরানার মুভিটির ভিজুয়ালাইজেশন কেমন হয়েছে, সেটা দেখার উত্তেজনা। ইয়ে, এক কথায় BDSM হচ্ছে, সঙ্গীকে যৌন নির্যাতন করতে করতে যৌনক্রিয়া করা। যারা বিস্তারিত জানতে চান তারা এখানে যেতে পারেন। b50f4d7f-860e-48d7-919c-580b6f234b5b Continue reading