অভিনন্দন গ্র্যাভিটি!

Gravity

গ্রাভিটি ৭ টা ক্যাটেগরিতে অস্কার জিতেছে। সবাই অনুমান করেছিলো অস্কার জিতবে। কিন্তু এতগুলো জিতবে, এটা মনে হয় কেউ আশা করেনি। অনেকেই বলেছেন মুভিটার কোন কাহিনী নাই খালি স্পেসের দৃশ্যায়ন দিয়ে পুরো মুভি পার। খুবই সত্যি কথা। কিন্তু আমি বলবো এখানেই ডিরেক্টরের মুন্সিয়ানা।একটা কাহিনীবিহীন মুভিও যে সাত সাতটি অস্কার জিততে পারে, গ্রাভিটি পৃথিবীর মুভি ইতিহাসে সেই সাক্ষী হয়ে থাকবে।

কাহিনী বলতে স্পেসের একজন টেকনিশিয়ানের পৃথিবীতে ফিরে আসা। তার পুরো দলটি স্পেস স্ট্রমের কবলে পড়ে ধ্বংস হয়ে যায়, সেই একমাত্র সহি সালামতে পৃথিবীতে পুনরায় প্রবেশ করতে পারে। আপাতঃ খুবই সাদামাটা কাহিনী। এই কাহিনী দিয়ে কম করে হলেও শ খানেক মুভি হয়ে গেছে ইতিমধ্যে, হলিউডেই। তাহলে এই মুভির বিশেষত্ব কি?

এই মুভির বিশেষত্ব এক কথায়, মুভির মেকিং। মুভির কাহিনী নয়। তাই যারা এই মুভি দেখতে বসে ’কাহিনী’ খুজেঁছেন, তারা হতাশ হয়েছেন। যারা মুভিটি ‘দেখেছেন’, তারা অসম্ভব উপভোগ করেছেন। কারন, এই মুভিটি দেখার সময় দর্শকের মনে হবে সে নিজেই যেন মুভির একটি চরিত্র হয়ে স্পেসে ঘুরছেন এবং এই অভিজ্ঞতাকে আরো বাস্তবরূপ দেয়ার জন্যই মুভিটি থ্রিডি প্রযুক্তিতে রিলিজ করা হয়েছে।

মুভির সিনেমাটোগ্রাফি এতই অসাধারন যে মহাকাশের দৃশ্যগুলো এতটা জীবন্তভাবে এখন পর্যন্ত পৃথিবীর আর কোন মুভিতে দেখানো হয় নাই। মহাশূন্যে একজন মহাকাশচারী কিভাবে কাজ করেন, কতটা ঝুকিঁ নিয়ে তারা প্রতি সেকেন্ডে টিকে থাকেন, তা যতটা সম্ভব পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে দেখানো হয়েছে। মহাশূন্যের ঝুকিঁ ও ভরবিহীন পরিবেশের কথা আমরা সবাই জানি, কিন্তু মুভিটি দেখতে বসে মনে হবে, এতদিন যা জেনেছি সেসবের পুরোটাই যেন অসম্পূর্ণ ছিলো। মুভি দেখা শেষ করে আমাদের জানাটা পূর্ণ মনে হবে। আর এখানেই মুভির সার্থকতা।  এই অভূতপূর্ব মুভিরও কিছু ফাকঁ রয়ে গেছে। যেমন: স্পেসে বিভিন্ন দেশের স্যাটেলাইটগুলো এতটা কাছাকাছি থাকার কথা নয়, তারপর স্পেসশাটলে যে ভেন্টিলেশন দেখানো হয়, সেটা মূলত পৃথিবীতে সিমুলেশন মডিউলে থাকে, মূল শাটল যেটা স্পেসে থাকে, সেখানে ওটা থাকে না।

নারী মহাকাশচারীদের স্পেসস্যুটের নীচে সেক্সি স্পোটর্সওয়ার থাকা…এছাড়াও আরেকটা ব্যাপার স্ক্রীনশট দিয়ে দেখালাম।

splr1

মুভিতে দেখানো হয়, রাশান স্পেস শাটলে ডেবরিজের ঝড় আঘাত হানে পেছনে থেকে। কিন্তু একটা ভাল করে খেয়াল করলে দেখা যায়, ডেবরিজের ঝড়ের একটা বড় অংশ আঘাত হানে নীচের দিক থেকে। যেটা হবার কথা ছিলো পেছন থেকে।

 

যাইহোক, প্রাণঢালা অভিনন্দন গ্র্যাভিটি! :)

 

 

স্বপ্নদুয়ারে রেজিষ্ট্রেশন না করেও আপনার ফেসবুক আইডি দিয়েই মন্তব্য করা যাবে। নীচের টিক চিহ্নটি উঠিয়ে কমেন্ট করলে এই পোষ্ট বা আপনার মন্তব্যটি ফেসবুকের কোথাও প্রকাশিত হবে না।

টি মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *